ঢাকা ০৬:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কুয়েত সরকারের পদত্যাগ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫২:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ নভেম্বর ২০২১ ২৮৪ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক আজকের একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আকস্মিক পদত্যাগ করেছে কুয়েতের সরকার। স্থানীয় সময় সোমবার দেশটির ক্ষমতাসীন আমিরের কাছে কুয়েত সরকার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছে। রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কুনা এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিরোধী সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বিরোধের জেরেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে কুয়েত সরকার। ফলে বিরোধী আইন প্রণেতাদের সঙ্গে অচলাবস্থার অবসান ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে। দুপক্ষের এ বিরোধের কারণে দীর্ঘদিন ধরেই আর্থিক সংস্কার বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল।

 

চলতি বছর এ নিয়ে দ্বিতীয়বার এমন ঘটনা ঘটল। এর আগেও নির্বাচিত পার্লামেন্ট সদস্যরা পদত্যাগ করেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তৎকালীন সরকার পদত্যাগ করার পর মার্চে প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহর নেতৃত্বে ফের নতুন সরকার গঠিত হয়।

কুনার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, শেখ সাবাহর হাত থেকে লিখিত পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন আমির শেখ নাওয়াফ আল আহমেদ আল সাবাহ।

করোনাভাইরাস মহামারি এবং দুর্নীতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহকে বিরোধী দলের বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্যের প্রশ্ন করার কথা ছিল। তার আগেই পুরো সরকারের পক্ষ থেকে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া হলো।

গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে কুয়েত। এর মধ্যেই এক বছরে দুবার দেশটির সরকার পদত্যাগ করায় রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কুয়েতের আইনপ্রণেতা ও ক্ষমতাসীন পরিবারের মধ্যে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে চলা দ্বন্দ্বের কারণে দেশটিতে এর আগেও কয়েকবার রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। এর জেরে বেশ কয়েক বার সংসদ সদস্য ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের পদত্যাগের ঘটনা ঘটেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

কুয়েত সরকারের পদত্যাগ

আপডেট সময় : ০৩:৫২:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ নভেম্বর ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আকস্মিক পদত্যাগ করেছে কুয়েতের সরকার। স্থানীয় সময় সোমবার দেশটির ক্ষমতাসীন আমিরের কাছে কুয়েত সরকার পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছে। রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কুনা এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর রয়টার্সের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিরোধী সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বিরোধের জেরেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে কুয়েত সরকার। ফলে বিরোধী আইন প্রণেতাদের সঙ্গে অচলাবস্থার অবসান ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে। দুপক্ষের এ বিরোধের কারণে দীর্ঘদিন ধরেই আর্থিক সংস্কার বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল।

 

চলতি বছর এ নিয়ে দ্বিতীয়বার এমন ঘটনা ঘটল। এর আগেও নির্বাচিত পার্লামেন্ট সদস্যরা পদত্যাগ করেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তৎকালীন সরকার পদত্যাগ করার পর মার্চে প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহর নেতৃত্বে ফের নতুন সরকার গঠিত হয়।

কুনার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, শেখ সাবাহর হাত থেকে লিখিত পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন আমির শেখ নাওয়াফ আল আহমেদ আল সাবাহ।

করোনাভাইরাস মহামারি এবং দুর্নীতির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ আল খালিদ আল সাবাহকে বিরোধী দলের বেশ কয়েকজন সংসদ সদস্যের প্রশ্ন করার কথা ছিল। তার আগেই পুরো সরকারের পক্ষ থেকে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়া হলো।

গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে কুয়েত। এর মধ্যেই এক বছরে দুবার দেশটির সরকার পদত্যাগ করায় রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কুয়েতের আইনপ্রণেতা ও ক্ষমতাসীন পরিবারের মধ্যে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে চলা দ্বন্দ্বের কারণে দেশটিতে এর আগেও কয়েকবার রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দিয়েছে। এর জেরে বেশ কয়েক বার সংসদ সদস্য ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের পদত্যাগের ঘটনা ঘটেছে।