ঢাকা ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শব্দ দূষণ নিরব ঘাতক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৩:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২১ ১৪২ বার পড়া হয়েছে
দৈনিক আজকের একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আব্দুল কাদের, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

গাড়ির হর্ণ, বিভিন্ন অনুষ্ঠান উৎসবে উচ্চ শব্দে সাউন্ড বাজানোসহ নানা উপায়ে শব্দ দূষণ হচ্ছে। এই শব্দ দূষণের ফলে প্রতিটি মানুষ খিটখিটে মেজাজের হচ্ছে। এতে অল্পতেই মানুষ রাগান্বিত হয়। শব্দের কারণে অনেকের রাতে ঘুম হয় না। তাই বলা যায় যে শব্দ দূষণ নিরব ঘাতক।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের সভা কক্ষে দূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারিত্ব প্রকল্পের আওতায় সচেতনামূলক প্রশিক্ষণ ও মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি।

জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মুহাম্মদ মুজাহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বাবিদ্যালয়ের এনভায়রনমেন্ট সায়েন্স অ্যান্ড রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক এএসএম সাইফুল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম, ডেপুটি সিভিল সার্জন শামীম হোসাইন চৌধুরী, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, উন্নত রাষ্ট্রে হর্নের পরিবর্তে রাস্তায় আলোক সিগনাল ব্যবহার করা হয়। তাই অযথা গাড়ি হর্ণ বা উচ্চ স্বরে হর্ণ বাজানো যায় না। এছাড়াও উচ্চ স্বরে সাউন্ড সিস্টেম না বাজানোর আহ্বান করেন বক্তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শব্দ দূষণ নিরব ঘাতক

আপডেট সময় : ১০:২৩:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর ২০২১

আব্দুল কাদের, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

গাড়ির হর্ণ, বিভিন্ন অনুষ্ঠান উৎসবে উচ্চ শব্দে সাউন্ড বাজানোসহ নানা উপায়ে শব্দ দূষণ হচ্ছে। এই শব্দ দূষণের ফলে প্রতিটি মানুষ খিটখিটে মেজাজের হচ্ছে। এতে অল্পতেই মানুষ রাগান্বিত হয়। শব্দের কারণে অনেকের রাতে ঘুম হয় না। তাই বলা যায় যে শব্দ দূষণ নিরব ঘাতক।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের সভা কক্ষে দূষণ নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত ও অংশীদারিত্ব প্রকল্পের আওতায় সচেতনামূলক প্রশিক্ষণ ও মতবিনিময় সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি।

জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মুহাম্মদ মুজাহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বাবিদ্যালয়ের এনভায়রনমেন্ট সায়েন্স অ্যান্ড রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক এএসএম সাইফুল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম, ডেপুটি সিভিল সার্জন শামীম হোসাইন চৌধুরী, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, উন্নত রাষ্ট্রে হর্নের পরিবর্তে রাস্তায় আলোক সিগনাল ব্যবহার করা হয়। তাই অযথা গাড়ি হর্ণ বা উচ্চ স্বরে হর্ণ বাজানো যায় না। এছাড়াও উচ্চ স্বরে সাউন্ড সিস্টেম না বাজানোর আহ্বান করেন বক্তারা।